সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
অপ্রতিরুদ্ধ ভারতের জয়যাত্রা অব্যাহত
অপ্রতিরুদ্ধ ভারতের জয়যাত্রা অব্যাহত

অপ্রতিরুদ্ধ ভারতের জয়যাত্রা অব্যাহত

সালেক সুফী,সিনিয়র ক্রীড়া বিশ্লেষক ও আন্তর্জাতিক জ্বালানী পরামর্শক

চলতি বিশ্বকাপ ক্রিকেট ২০২৩ নয় ম্যাচের প্রতিটি অনায়েসে জয় করে টিম ইন্ডিয়া একমাত্র অপরাজেয় দল হিসাবে সেমী ফাইনালে উন্নীত হয়েছে। কাল ব্যাঙ্গালুরু চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে ১৬০ রানে টুর্নামেন্টের একমাত্র আইসিসি সহযোগী সদস্য দেশ নেদারল্যান্ডসকে ১৬০ রানের বিশাল ব্যাবধানে হারাতে আদৌ বেগ পেতে হয় নি. টস জয় করে টপ এবং মিডল অর্ডারে ৫ জন স্রেস আয়ার (১২৮*) ,কে এল রাহুল (১০২) , রোহিত শর্মা (৬১) ,সুবমান গিল (৫১) এবং বিরাট কোহলি (৫১) খুনে ব্যাটিং করায় ভারতের স্কোর দাঁড়ায় আকাশ ছোয়া ৪১০/৪।

এই স্কোর তাড়া করে ম্যাচ জয় ছিল নেদারল্যান্ডসের সাদ্ধ এবং সামর্থের অতিরিক্ত। নিজেদের সেরাটা নিবেদন করে ওরা ২৫০ রান করে। ভারত ১৬০ রানে জয়ী হয়ে শতকরা শতভাগ জয়ের রেকর্ড অক্ষুন্ন রাখে। আগামী ১৫ নভেম্বর ভারত নিউ জিল্যান্ডের বিরুদ্ধে মুম্বাই ওয়াংখেদে স্টেডিয়ামে খেলবে প্রথম সেমী ফাইনাল। পরের দিন কলকাতা ইডেন গার্ডেনসে অস্ট্রেলিয়া লড়বে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে। বলা বাহুল্য টুর্নামেন্টের সেরা পারফর্ম করা ৪ দল ৪৫ ম্যাচ শেষে পৌঁছেছে শেষ চারে।

কাল ছিল গ্রুপ পর্যায়ে শেষ ম্যাচ। টুর্নামেন্টের ধারা অনুযায়ী নাটকীয় কিছু ঘটার সম্ভাবনা ছিল না. টস জয় করে স্বাভাবিক ভাবেই ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো ভারত। এই ভারতের ব্যাটিং ,বোলিং এমনকি ফিল্ডিং এখন নিখুঁত মনে হচ্ছে। সবাই এখন শিরোপা জয়ের জন্য ক্ষুধার্ত।

ব্যাট হাতে শ্রেয়াস আয়ার ( ৯৪ বলে অপরাজিত ১২৮) . কে এল রাহুল ( ৬৪ বলে ১০২), রোহিত শর্মা ( ৫৪ বলে ৬১ ) , সুবমান গিল ( ৩২ বলে ৫১) ,বিরাট কোহলি (৫৬ বলে ৫১) রান করলে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ভারতের স্কোর দাড়ায় ৪১০/৪ উইকেটে। কাকে রেখে কার কথা লিখবেন। টপ এবং মিডল অর্ডারে প্রতিটি ব্যাটসম্যানের ম্যাচ জয়ী হবার দক্ষতা। সূর্যকুমার যাদব বা রাভিন্দ্রা জাদেজাকে ব্যাট হাতে কাল কিছু করার প্রয়োজন পড়লো না. এহেন পাহাড়সম পুঁজির বিরুদ্ধে ভারতের বিশ্ব মানের বোলিংয়ের বিরুদ্ধে কিছুই করার সুযোগ ছিল না নেদারল্যান্ডসের। তবুও নিজেদের সেরাটি উপহার দিয়ে নেদারল্যাডস ২৫০ করেছে। বিশাল রান পাহাড়ে চাপা পড়ে অন্নান্য কিছু দলের মত আত্মসমর্পণ না করার কৃত্তিত্ব ওরা পেতেই পারে।

টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডের সব খেলা শেষে বলতে দ্বিধা নেই বিশ্বকাপ জয়ের জন্য সব ধরনের গোলা বারুদ এবং অন্নান্য রসদ নিয়ে প্রস্তুত ভারত। তবুও খেলাটির নাম ক্রিকেট। নক আউট রাউন্ডে অনেক কিছুই ঘটতে পারে। সেমী ফাইনালিস্ট হিসাবে ভারতের সামনে কেন উইলিয়ামসনের ব্ল্যাক ক্যাপস বাহিনী। অন্যদিকে ওপর সেমী ফাইনাল খেলবে ৫ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া চোকার খ্যাত দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে। অস্ট্রেলিয়া ৫ বার এবং ভারত দুবার শিরোপা জিতলেও নিউজিল্যান্ড বা দক্ষিণ আফ্রিকা শিরোপার ছোয়া পায় নি। আশা করি দুটি সেমী ফাইনাল এবং ফাইনালে হাড্ডা হাড্ডি লড়াই হবে এবং সেরা দলটি জিতে নিবে ২০২৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপ।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপি থেকে বিরত থাকুন,ধন্যবাদ।