শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১

হঠাৎ খেলা থামিয়ে রোজাদারের প্রতি যেভাবে সম্মান জানালো ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
হঠাৎ খেলা থামিয়ে রোজাদারের প্রতি যেভাবে সম্মান জানালো ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ

হঠাৎ খেলা থামিয়ে রোজাদারের প্রতি যেভাবে সম্মান জানালো ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ

নতুন সূর্য সেস্কঃ

‘ফুটবল এই কারণেই সুন্দর। আজ আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই লিগ কর্তৃপক্ষকে, লেস্টার সিটি ও ক্রিস্ট্রাল প্যালেসের সব ফুটবলারদের। আমাকে খেলার মাঝপথে ইফতারি করার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য। কথাগুলো নিজের টুইটারে লিখেছিলেন ২০ বছর বয়সী ফরাসি ডিফেন্ডার ফোফানা, যার ধর্ম ইসলাম।

একই ম্যাচে দু’দলের মুসলিম ফুটবলার ফোফানা এবং সেনেগালের ডিফেন্ডার চিকু কাওয়াতেকে ইফতারির সুযোগ করে দিতে আগে থেকেই পরিকল্পনা করে রেখেছিলেন লেস্টার সিটি ও ক্রিস্ট্রাল প্যালেসের ফুটবলাররা। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী ম্যাচের ৩০ দশমিক ১৫ সেকেন্ডে হঠাৎ করেই খেলা বন্ধ করে মাঠে দাঁড়িয়ে যায় দুই দলের খেলোয়াড়রা। কারণ তখন তাদের দুই সতীর্থের ইফতারির সময় হয়ে গিয়েছে।দুই দলের দুই ফুটবলার ফোফানাও ও চিকু কাওয়াতে এ সময় এনার্জি জেল পান করে ইফতারি সারেন। আর এর সাথেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নতুন এক দৃষ্টান্ত তৈরি হয়। সেটি হল এই প্রথম ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ইফতারির জন্য বিরতি দেওয়া হল।

লিভারপুলের মোহাম্মদ সালাহ ও সাদিও মানে রোজা রেখে খেলে খবরের শিরোনাম হয়েছে আগে। ২০১৮ চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে সালাহ ও মানে রোজা রেখেই খেলেছিলেন। এ নিয়ে কিন্তু কম আলোচনা হয়নি তখন।

২৬ এপ্রিলের এই ম্যাচের আগেই দুই দলের অধিনায়ক ঠিক করে রেখেছিলেন সূর্য ডোবার পর বল যখন মাঠের বাইরে যাবে তখনই ফোফানা ও চিকু কাওয়াতের ইফতারির জন্য বিরতিটা নেওয়া হবে। তারা তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে অনন্য এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

এ ব্যাপারে লেস্টার সিটির কোচ ব্রেন্ডন রজার্স ফোফানাও সম্পর্কে বলেন, রমজান মাস চলছে স্বাভাবিকভাবেই দিনের বেলা খাচ্ছে না সে। এটি চমকপ্রদ ব্যাপার। কিন্তু মাঠে ওর পারফরমেন্স চিন্তা করুন। সারা দিন কিছু না খেয়েও এমন খেলতে পারা অসাধারণ। সে দারুণ খেলেছে। আমি অনেক খেলোয়াড়ের সঙ্গে কাজ করেছি যারা তাদের ধর্মে গভীরভাবে বিশ্বাস করে এবং যে বিশ্বাস তাদের বাড়তি শক্তি দেয়। এই রমজানেও টানা খেলা ও অনুশীলন করার শক্তি পাচ্ছে। ফোফানাও বিশেষ এক প্রতিভা।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *